বৃহস্পতিবার, ০৬ অগাস্ট ২০২০, ১২:৩৭ অপরাহ্ন

বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসীর মাটি কাটা ড্রেজারে হামলা ভাঙ্গচুর আগুন

আড়াইহাজার  প্রতিনিধি: / ১২৬ জন পড়েছেন
আপডেট : শনিবার, ১৮ জুলাই, ২০২০, ২:৩৪ অপরাহ্ন
বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসীর মাটি কাটা ড্রেজারে হামলা ভাঙ্গচুর আগুন
বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসীর মাটি কাটা ড্রেজারে হামলা ভাঙ্গচুর আগুন

জেলার আড়াইহাজার উপজেলার কালাপাহাড়িয়া ইউনিয়নের মেঘনা নদীতে এসে ড্রেজিং করার সময় কুমিল্লার দুটি ড্রেজার ভাংচুর করে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে এলাকাবাসী। শনিবার ভোরে ইউনিয়নের মধ্যার চর এলাকায় নদীর মাঝখানে এঘটনা ঘটে।

এলাকাবাসী জানান, কুমিল্লার মেঘনা থানার চারিভাঙ্গা ইউনিয়ণের চেয়ারম্যান লতিফ ওরফে লতু মিয়া দীর্ঘদিন ধরে কালাপাহাড়িয়া ইউনিয়ণের মধ্যার চরে এসে ড্রেজার বসিয়ে ড্রেজিং করায় চর ভাঙ্গন দেখা দেয়। এতে একাধীকবার প্রতিবাদ করেও তাদের ড্রেজার সরানো যায়নি। শনিবার ভোরেও তারা মধ্যার চরের আরো কাছে ড্রেজার বসিয়ে ড্রেজিং করা শুরু করে। এসময় এলাকাবাসী ক্ষুদ্ধ হয়ে ড্রেজারে হামলা চালায়। ওই সময় ড্রেজারে থাকা লোকজন পালিয়ে যায়। তখন এলাকাবাসী ড্রেজার দুটিতে আগুন ধরিয়ে দেয়। এতে একটি ড্রেজার ডুবে যায় আরেকটি পুড়ে যায়।
কালাপাহাড়িয়া ইউনিয়ণ পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই মোফাজ্জল করিম জানান, ইউনিয়নের মধ্যার চরের কাছে প্রভাব খাটিয়ে ড্রেজিং করায় এলাকাবাসী দুটি ড্রেজারে আগুন দিয়েছে ভোরে। কিন্তু আমরা খবর পেয়েছি কিছুটা পরে। এরপর ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করা হয়েছে। ড্রেজারটি নদীতে এবিষয়ে নৌপুলিশ তদন্ত করবে।
ড্রেজারের মালিক চারিভাঙ্গা ইউনিয়ণের চেয়ারম্যান লতিফ ওরফে লতু মিয়া বলেন, কুমিল্লা জেলা প্রশাসন থেকে মেঘনা থানার মেঘনা নদীর প্রেমের চর সাত মারা চর নামে চরে ইজারা নিয়েছি। এরপর রিয়াদ সুপার ও চাঁদের আলো নামে দুটি ড্রেজার দিয়ে ড্রেজিং করছিলাম। এক স্থানে বেশি সময় ড্রেজিং করা যায়না। তাই স্থান পরিবর্তন করা হয়। শনিবার যে স্থানটিতে ড্রেজার ছিলো সেটি আমাদের সিমানায়। এরমধ্যে কালাপাহাড়িয়ার কয়েকশত লোকজন স্থানীয় সন্ত্রাসীদের নেতৃত্বে এসে ড্রেজার দুটি তাদের মধ্যার চরের কাছে নিয়ে যায়। এরপর হামলা করে একটি ডুবিয়ে দেয় আরেকটিতে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে। এবিষয়ে মামলা করবো।
কালাপাহাড়িয়া ইউনিয়ণের চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম স্বাপন বলেন, শুনেছি এলাকাবাসী ড্রেজারে আগুন দিয়েছে। খবর নিয়ে পরে বিস্তারিত জানাবো।


এ বিভাগের আরও খবর

ফেসবুকে আমাদের যারা বন্ধু

এক ক্লিকে বিভাগের খবর
Translate »
Translate »