বৃহস্পতিবার, ২১ জানুয়ারী ২০২১, ০৫:৫৫ অপরাহ্ন

গরীব হকারের পেটে লাথি মারা হচ্ছে-শামীম ওসমান

নিজস্ব প্রতিবেদক: / ৩১ জন পড়েছেন
রবিবার, ১০ জানুয়ারী, ২০২১, ১১:৫৩ অপরাহ্ন

নারায়ণগন্জ জেলা বাস মিনিবাস মালিক সমিতির সভাপতি আলহাজ্ব মুক্তার হোসেনের রুহের মাগফিরাত কামনায় মিলাদ ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথীর বক্তব্যে সংসদ সদস্য শামীম ওসমান বলেছেন , আপনাদের প্রিয় ব্যক্তিত্ব মুক্তার হোসেন।আমার প্রিয় ব্যক্তিত্ব মুক্তার হোসেন।উনি চলে গেছেন। কাল আমরাও চলে যাবো। এটা সামাজিক বিষয়।

 

মায়া মমতার কারনে এ সামাজিক বিষয়টি অনেকে মেনে নিতে চায় না।আর সে বিষয়টি থেকে অনেকে শিখ্যা নেয় না। এ শহরে অনেক অনিয়ম হচ্ছে। ফুটপাতে বসে কেউ ফল বিক্রি করছে। নিজের এবং পরিবারের জীবিকা নির্বাহ করছে। অনেকে তা সহ্য করতে পারে না। গরীব হওয়াটাই তার বড় অপরাধ।কেউ একজন মাঝে মাঝে গরীবের পেটে লাথি মারছে।হকার উচ্ছেদ করছে। গরীব হকারের পেটে লাথি মারা হচ্ছে। কারন ধনী কখনো গরীবের কথা বলবে না।

 

মহানগরীর কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালে গতকাল ১০ জানুয়ারী দুপুরে জেলা বাস- মিনিবাস মালিকশ্রমিক ঐক্য পরিষদের উদ্যোগে সদ্য প্রয়াত মুক্তার হোসেনের রুহের মাগফিরাত কামনায় মিলাদ ও দোয়ার অনুষ্ঠানে সাংসদ শামীম ওসমান ওই কথা বলেন।উৎসব ট্রান্সপোর্ট লিঃ চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্বা আলহাজ্ব শহীদুল্লাহর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অতিথী ছিলেন আওয়ামীলীগ নেতা খাদেম আলহাজ্ব সানাউল্লাহ , মহানগর আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি মাসুদুর রহমান খসরু , প্রয়াত মুক্তারের ছেলে খন্দকার আতিক শাহরিয়ার আদনান ও খন্দকার আতিক ইশরাক সবুজ।দোয়ার অনুষ্ঠানে আনন্দ ট্রান্সপোর্ট লিঃ ভাইস চেয়ারম্যান দিদারুল ইসলাম , পরিচালক শাহ ফয়েজউল্লাহ , সিটি বন্দন পরিবহন চেয়ারম্যান জুয়েল হোসেন , ব্যবস্হাপনা পরিচালক আইউব আলী , বন্দু পরিবহনের হাজী মুরাদ হোসেন , সাইফুল ইসলাম ,শ্রমিক কমিটির সভাপতি মোঃ শামসুজ্জামান , কার্যকরী সভাপতি জিলানী মাতবর , সহসভাপতি খাজা ইরফান আলী ,রাব্বানী মিয়া , সাংগঠনিক সম্পাদক গিয়াসউদ্দীন , অর্থ সম্পাদক আলতাফ হোসেন , সড়ক সম্পাদক আলআমিন খান প্রমুখ উপস্হিত ছিলেন।

 

সংসদ সদস্য শামীম ওসমান বলেন , কোরআন পড়ে যতটুকু শিখেছি — নামাজ , রোজা , হজ্ব , যাকাতের পরও গরীবকে খাদ্য বা আহার দিতে হবে।কাজ দিতে হবে।অথচ কেউ কেউ আহার যোগান না দিয়ে উল্টো গরীবের পেটে লাথি মারছে।

 

পরিবহন মালিক নেতা মুক্তার হোসেন কখনো কারও সাথে খারাপ ব্যবহার করেছেন বলে শুনিনি।তিনি হজ্ব করেছেন– হজ্বের মর্যাদা রাখার চেস্টা করেছেন।আল্লাহ তার হজ্ব কবুল করেছেন।দুনিয়া খনস্হায়ী।আখেরাত দীর্ঘস্হায়ী।মৃত্যুর পর আজ অনেকে দোয়া করছেন।এটা করবেন।কিন্ত আমাদের প্রতি মুহুর্তে ভূল ক্রটি হয়।সে জন্য জীবিত থাকাকালে খমা চেয়ে নিতে হবে।

 

সংসদ সসদ্য শামীম ওসমান বলেন , এই বাস স্ট্যান্ডের সাথে ছাএ রাজনীতির সময় হতে সম্পর্ক।তা ভূলতে পারি না।ছাএ-শ্রমিক একএে রাজনীতি করেছি। অনেকে চলে গেছেন।সবার বয়স হয়েছে।আমরাও চলে যাবো।মৃত্যুর সময় যেন ভয় না লাগে।মৃত্যুর সময় খুশি থাকতে হবে।এ জন্য আল্লাহর সন্তষ্টি অর্জন করতে হবে।

 

 

অন্য ধর্মের সম্পদ কিংবা অন্যের সম্পদ দখল করা সমর্থন করি না।এগুলো করে কি লাভ ? আরে অন্যের সম্পদ দখল করলে কবরে গেলে সেই সম্পদ ঘাড়ে ঝুলিয়ে দেয়া হবে।সেই বোঝা বইতে পারবেন ? আমি এর উল্টো টা। সারা বিশ্ব যেন দেখে আমি মৃত্যুর সময় খালি হাতে গেলাম।মুক্তার ভাইয়ের জন্য , আমার জন্য দোয়া করবেন।সাংসদের বক্তব্যের পর দোয়া শেষে নেওয়াজ বিতরন করা হয়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ বিভাগের আরও খবর

এক ক্লিকে বিভাগের খবর
Translate »
Translate »