বুধবার, ১২ অগাস্ট ২০২০, ০৭:০৯ অপরাহ্ন

সদর উপজেলায় ১১টির মধ্যে ৯ হাটের ইজারা সম্পন্ন

নিজস্ব প্রতিবেদক : / ২৯ জন পড়েছেন
আপডেট : মঙ্গলবার, ২১ জুলাই, ২০২০, ১০:৫৬ অপরাহ্ন
সদর উপজেলায় ১১টির মধ্যে ৯ হাটের ইজারা সম্পন্ন

সদর উপজেলায় ১১টি অস্থায়ী কোরবানির পশুর হাটের মধ্যে ৯ টি হাটের দরপত্র সম্পন্ন হয়েছে। মঙ্গলবার (২১ জুলাই) সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নাহিদা বারিক আনুষ্ঠানিকভাবে দরপত্র ঘোষণা করেন। সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, মোট ১১টি হাটের বিপরীতে ১৩০টি দরপত্র ক্রয় করা হয়। তবে জমা পড়ে ২৭টি।
১১টি হাটের বিপরীতে দুইটি হাটের মধ্যের একটিতে কোনো দরপত্র দাখিল না হওয়ায় এবং আরেকটি দরপত্র অসম্পূর্ণ থাকায় তা বাতিল করা হয়েছে। হাট দুটি হলো- গোগনগর ইউনিয়নের বাড়িরটেক সংলগ্ন মাদবর বাড়ির পশ্চিমপাড় দেলোয়ার হোসেনের নিজস্ব ভূমিতে অস্থায়ী হাট ও কাশিপুর ইউনিয়ন ক্লাব মাঠের হাটটি।
আগামী রবিবার (২৬ জুলাই) এই দুই হাটের দরপত্র ঘোষণা করা হবে জানিয়ে বাকি ৯ টি হাটের ইজারাদারদের নাম ঘোষণা করেন সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নাহিদা বারিক।
২ লাখ ১০ হাজার টাকার বিনিময়ে কুতুবপুর ইউনিয়নের পাগলা তালতলা সংলগ্ন প্যারাডাইস সিটি মাঠের হাটের ইজারা পান শাহ আলম গাজী টেনু। যার সরকারি ইজারা ছিলো ৯৫ হাজার ৫শ’ টাকা। ১ লাখ ১৮ হাজার টাকার বিনিময়ে গোগনগর ইউনিয়নের পুরান সৈয়দপুর এলাকায় আলী আকবর এর নিজস্ব ভূমিয়ে অস্থায়ী পশুর হাটের ইজারা পান নাজির আহমেদ। যার সরকারি ইজারা ছিলো ১ লাখ ১৭ হাজার টাকা। ৬৭ হাজার ১০১ টাকার বিনিময়ে গোগনগর ইউনিয়নের চরসৈয়দপুর শান্ত ফিলিং স্টেশন সংলগ্ন আসলাম মিয়ার নিজস্ব ভূমিতে অস্থায়ী পশুর হাটের ইজারা পান খলিল মাতবর। যার সরকারি ইজারা ছিলো ৬৫ হাজার টাকা। ৪১ হাজার টাকার বিনিময়ে গোগনগর ইউনিয়নের বাদশা মিয়ার নিজস্ব ভূমিতে অস্থায়ী পশুর হাটের ইজারা পান মো. সাইদুর রহমান। যার সরকারি ইজারা ছিলো ৪০ হাজার ৯শ’ টাকা। ৭১ হাজার ৫শ’ টাকার বিনিময়ে কুতুবপুর ইউনিয়নের শান্তিধারা এলাকায় হাজী আব্দুর রাজ্জাক বেপারীর মার্কেট সংলগ্ন খালি মাঠে অস্থায়ী পশুর হাটের ইজারা পান হাজী আব্দুর রাজ্জাক বেপারী। যার সরকারি ইজারা ছিলো ৬৪ হাজার ৭শ’ টাকা। ৫৬ হাজার টাকার বিনিময়ে বক্তাবলী ইউনিয়ন ৪নং ওয়ার্ডের রাজাপুর গ্রামের অস্থায়ী পশুর হাটের ইজারা পান সাব্বির আহমেদ হৃদয়। যার সরকারি ইজারা ছিলো ৫৫ হাজার ৭শ’ টাকা। ৪৫ হাজার টাকার বিনিময়ে গোগনগর ইউনিয়নের পলি ফ্যাক্টরি সংলগ্ন আলী আকবরের নিজস্ব ভূমিতে অস্থায়ী পশুর হাটের ইজারা পান মোহাম্মদ উল্লাহ আল মামুন। যার সরকারি ইজারা ছিলো ৪৪ হাজার ৬শ’ টাকা। ৭০ লাখ টাকার বিনিময়ে গতবারের কোটি টাকার কুতুবপুর ইউনিয়নের আলীগঞ্জ নদীর পাড়ে মৃত হাফেজ মোক্তার নিজস্ব ভূমিতে অস্থায়ী পশুর হাটের ইজারা পান আবু বক্কর। যার সরকারি ইজারা ছিলো ৩৯ লাখ টাকা। ৬১ হাজার ৫শ’ টাকার বিনিময়ে গোগনগর ইউনিয়নের সৈয়দপুর পাঠাননগর এলাকায় অস্থায়ী পশুর হাটের ইজারা পান সৈকত হোসেন।


এ বিভাগের আরও খবর

এক ক্লিকে বিভাগের খবর
Translate »
Translate »