বুধবার, ১২ মে ২০২১, ১২:৫৯ পূর্বাহ্ন

সিদ্ধিরগঞ্জে টাইগার ফারুকের সহযোগীদের দৌড়ঝাপ

নিউজ নারায়ণগঞ্জ / ২৪ জন পড়েছেন
মঙ্গলবার, ৪ মে, ২০২১, ১:০৩ অপরাহ্ন

সিদ্ধিরগঞ্জের চিহ্নিত মাদক সম্রাট টাইগার ফারুক অবশেষে ১০ লাখ টাকা চাঁদাবাজি মামলায় কারাগারে। তবে জামিনে ছাড়িয়ে আনতে তার সহযোগীদের দৌড়ঝাপ চলছে চোখে লাগার মতো। এরআগে রোববার সিদ্ধিরগঞ্জের মিজমিজি টিসি রোড এলাকায় অভিযান চালিয়ে টাইগার ফারুককে আটক করে থানা হাজতে রাখার খবরে থানায় ছুটে যায় তার সহযোগিরা।

এরমধ্যে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক ও রেন্ট-এ কার স্ট্যান্ডের চিহ্নিত চাঁদাবাজ ভুমিদুস্য আমিনুল হক রাজু, চিটাগাংরোডের পরিবহন চাঁদাবাজ র‌্যাবের হাতে গ্রেপ্তার হওয়া সামাদ বেপারী ও বেশ কয়েকটি মামলার আসামী কবির।

রোববার দুপুরে রাজু ও কবির দীর্ঘ সময় থানার ওসির রুমে বসে দেনদরবার করে। নানাভাবে পুলিশকে ম্যানেজ করার চেষ্টা করে। এক পর্যায়ে ব্যর্থ হয়ে বিকালের দিকে তারা ফিরে যায়। কিন্তু ইফতারের পর আবার থানায় ছুটে যায় রাজু, কবির, সামাদ বেপারী।

বিভিন্নভাবে নানাজনের নাম বিক্রি করে তারা তদবির চালায় টাইগার ফারুকের পক্ষে। কিন্তু থানার ওসি তাদের কোন তদবিরে পাত্তা না দিয়ে অটল থাকেন। রাত সাড়ে ৯টায় মোটা কবীর টাইগার ফারুকের সাথে হাজতে গিয়ে কথা বলে। গভীররাত পর্যন্ত টাইগার ফারুকের সহযোগি ও শেল্টারদাতারা থানায় আসা-যাওয়া আসা করেন এবং ছাড়িয়ে নিতে তদবির চালান।

তবে থানা পুলিশের একাধিক সূত্র জানায়, টাইগার ফারুকের সহযোগি ছাড়াও শাহীন ও শিপলু তদবির করে টাইগার ফারুকের পক্ষে। ওসির রুমে বসে নানাভাবে তারা তদবির চালায় মাদক সম্রাট টাইগার ফারুককে ছাড়িয়ে নিতে।

কিন্তু ওসির কঠোরতায় তারা ব্যর্থ হয়। পরে টাইগার ফারুককে পানি ও খাবার কিনে দিয়ে চলে যায় শাহীন ও শিপলু। কিন্তু রাতে পুনরায় কবির, সামাদ বেপারী, রাজুর সাথে থানায় যায় শাহীন। রাত সাড়ে ৯টার দিকে মোটা কবীর ও শাহীন টাইগার ফারুকের সাথে হাজতে গিয়ে কথা বলে।

সূত্র জানায়, টাইগার ফারুককে ছাড়িয়ে নিতে মোটা অংকের টাকার অফারও দেয়া হয় পুলিশকে। কিন্তু শেষ রক্ষা হয় নাই।

সূত্রজানায়, টাইগার ফারুকের মাদক বিক্রি থেকে নিয়মিত মাসোহারা পেতো তদবিরকারীরা। ফলে টাইগার ফারুক আটক হওয়ার পর তাদের ঘুম নস্ট হয়ে যায়। তাকে ছাড়ানোর জন্য থানায় ছুটে যায় তারা। এবং হাজতে ফারুকের সাথে দেখা করে তদবিরকারীরা আশ্বাস দিয়ে আসে সমস্যা নাই, ছাড়িয়ে নিয়ে যাবো। কথা চলতেছে।

কিন্তু শেষ পর্যন্ত সোমবার (৩ মে) মাদক সম্রাট টাইগার ফারুকের বিরুদ্ধে ১০ লাখ টাকার চাঁদাবাজি মামলা দায়ের হওয়ার পর পিছু হটে তদবিরকারীরা। ফলে মঙ্গলবার টাইগার ফারুককে আদালতে চালান করার সময় তদবীরকারীদের দেখা যায়নি। তবে সূত্র জানায়, টাইগার ফারুককে জামিনে বের করতে ওই তদবিরকারীরা দৌড়ঝাপ শুরু করে দিয়েছেন।

উল্লেখ্য, বহু অপকর্মের হোতা টাইগার ফারুককে রোববার (২ মে) সকালে সিদ্ধিরগঞ্জের মিজমিজি টিসি রোড এলাকায় অভিযান চালিয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) ফারুক আটক করে থানায় নিয়ে যায়। পরে তার বিরুদ্ধে সিদ্ধিরগঞ্জের হিরাঝিল এলাকার ইন্টারনেট ব্যবসায়ী মহসিন হোসেন রানা বাদী হয়ে ১০ লাখ  টাকার চাঁদাবাজির মামলা দায়ের করে। পুলিশ ৭ দিনের রিমান্ডে চেয়ে টাইগার ফারুককে আদালতে পাঠিয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ বিভাগের আরও খবর

এক ক্লিকে বিভাগের খবর
Translate »
Translate »