আওয়ামীলীগে যাত্রা শুরু সেন্টুর


নিজস্ব প্রতিবেদক: আওয়ামীলীগে আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু হলো মনিরুল আলম সেন্টুর। ইতি ঘটলো বিএনপিতে তার দীর্ঘ পথচলা। বিএনপির রাজনীতিতে জড়িত থেকে ফতুল্লা থানা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ও সভাপতি হয়েছেন। পরে ফতুল্লা থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এবং সবশেষ ফতুল্লা থানা বিএনপির সিনিয়র সহসভাপতির দায়িত্ব পালন করেন।

 

কেন্দ্রীয় বিএনপির শীর্ষনেতাদের নেক নজরেও ছিলেন তিনি। কিন্তু ২০১৮ সালে আওয়ামীলীগের প্রার্থী শামীম ওসমানের পক্ষে নৌকার ভোট ও দোয়া চাইতে গিয়ে বহিস্কার হন সেন্টু। কিন্তু শামীম ওসমান তাকে হতাশ করেননি। কাছে টেনে নেন।

 


শামীম ওসমান আসন্ন কুতুবপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের দলীয় মনোনয়ন পাইয়ে দেন সেন্টুকে। মনোনয়ন পাওয়ার পর বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুলের নৌকা দিয়ে শ্রদ্ধা জানিয়ে ও শামীম ওসমানের পিতা-মাতার কবর জিয়ারত করে নির্বাচনী কার্যক্রম শুরু করলেন মো. মনিরুল আলম সেন্টু চেয়ারম্যান।
 


রবিবার (১০ অক্টোবর) বিকালে কুতুবপুর ও ফতুল্লা থানা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের নিয়ে পঞ্চবটী থানা আওয়ামী লীগের কার্যালের সামনে অবস্থিত বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুলের নৌকা দিয়ে শ্রদ্ধা জানান প্রথমে। এর পর নারায়ণগঞ্জ কেন্দ্রীয় কবরস্থানে এমপি একেএম শামীম ওসমানের পিতা-মাতার কবর জিয়ারত করেন তিনি।

আরও পড়ুন: জাকির চেয়ারম্যানের নির্বাচন করার ঘোষনা

 

এসময় সেন্টু চেয়ারম্যান এর সাথে উপস্থিত ছিলেন, ফতুল্লা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান খন্দকার লুৎফর রহমান স্বপন, নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের সদস্য ও থানা আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক মো. মোস্তফা হোসেন চৌধুরী, কুতুবপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও থানা আওয়ামী লীগের সদস্য মো. জসিমউদদীন, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. মানিক চান, থানা আওয়ামী লীগের কার্যকরি সদস্য মো. মোতালেব মোল্লা, মো. জাহাঙ্গীর আলম, মো. মিন্টু ভূইয়া, কুতুবপুর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য মো. রোকন উদ্দিন, কুতুবপুর ইউনিয়ন যুবলীগ নেতা মো. রাসেল মোল্লা, বাবু মোল্লা, জামাল উদ্দিন বাচ্চু, নবী হাওলাদার প্রমূখ।

 

মন্তব্যসমূহ (০)


Lost Password


মন্তব্য করতে নিবন্ধন করুন