ফতুল্লা রেলষ্টেশন সড়কে জলাবদ্ধতা

সদর উপজেলার  ফতুল্লা  ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ড অন্তভুক্ত ফতুল্লা রেলস্টেশন মোল্লা মার্কেট থেকে শিয়াচর উকিল বাড়ী মোড় পর্যন্ত রাস্তাটির  বছরের অধিকাংশ সময় তলিয়ে থাকে পানির নিচে। চরম দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে রাস্তা দিয়ে চলাচলরত হাজার হাজার  পথচারীদের। দেখার যেন কেউ নেই।পানি নিস্কাঃসনে অপরিকল্পিত ড্রেনেজ ব্যবস্থা এবং ড্রেন পরিস্কার না করাই জলাবদ্ধতার প্রধান কারন বলে জানান স্থানীয়রা।

 


সামান্য বৃষ্টি হলেই রাস্তাটি তলিয়ে যায়  পানির নীচে। বছরের অধিকাংশ সময় রাস্তাটি ডুবে থাকে পানির নীচে। ফলে চরম দূর্ভোগ ও অভিশাপে পতিত হয়েছে রাস্তাটি।রাস্তাটিতে চলাচলে হাজারো মানুষের ভোগান্তির শেষ নেই।রাস্তার পার্শ্বে গড়ে উঠা ছোট-বড় বিভিন্ন রকমের  প্রায় অর্ধ-শতাধিক দোকান- ঘর বা ব্যবসা প্রতিষ্ঠান রয়েছে।এ সকল দোকানিদের অবস্থা সবচাইতে নাজুক।জলাবদ্ধতার কারনে  অধিকাংশ দোকানিরা তাদের ব্যবসা গুটিয়ে চলে যাচ্ছে অনত্র।


স্থানীয়রা জানায়,সামন্য বৃস্টি হলেই রাস্তাটি হাটু পরিমান পানির নীচে তলিয়ে যায়। তাছাড়া বছরের অধিকাংশ সময় রাস্তাটি তলিয়ে থাকে পানির নিচে।আর এ ময়লা পানি মাড়িয়ে প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ এ রাস্তা দিয়ে যাতায়াত করে থাকে।


যানবাহন চলাচলে ছোট বড় গর্তে পরে প্রতিনিয়ত ঘটছে দূর্ঘটনা। তাছাড়া স্থানীয় ইউপি সদস্য হাসমতের বসবাস এ রাস্তার পাশেই। কিন্তু তা স্বত্বেও বর্তমান ইউপি সদস্য জলাবদ্ধতা নিরসনে নিচ্ছেনা কোন ব্যবস্থা।

আরও পড়ুন: না ফেরার দেশে চলে গেলেন কবি আমজাদ হোসেন


এলাকাবাসির অভিযোগ স্থানীয় ইউপি সদস্য হাসমত কে বহুবার এই জলাবদ্ধতার বিষয়টি  বলা হলেও কাজের কাজ কিছুই হয়নি। তাই ড্রেন পরিস্কার ও জলাবদ্ধতা নিরসনে স্থানীয় বাসী নিজ উদ্দেগ্যে অর্থ সংগ্রহ করে কাজ করার পদক্ষেপ গ্রহন করা হয়েছিলো।


তবে রোববার দুপুরে ফতুল্লা ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান খন্দকার লুৎফর রহমান স্বপন রেলস্টেশন এলাকায় গিয়ে জলাবদ্ধতা নিরসনে অতিদ্রু পদক্ষেপ গ্রহন করার আশ্বাস দিয়েছেন বলে জানায় স্থানীয়বাসী।

 

মন্তব্যসমূহ (০)


Lost Password


মন্তব্য করতে নিবন্ধন করুন