বুধবার, ১৪ এপ্রিল ২০২১, ০৪:৪৪ অপরাহ্ন
/ সোনারগাঁ
সোনারগাঁয়ে রয়্যাল রিসোর্টে, উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়, যুবলীগ এবং ছাত্রলীগ নেতার বাড়িঘর, ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনায় হেফাজত নেতাকর্মীদের আসামি করে আরও তিনটি মামলা দায়ের হয়েছে। শুক্রবার (৯ এপ্রিল) রাতে বিস্তারিত...........
নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ের একটি রিসোর্টে হেফাজত ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হকের সঙ্গে ঘটে যাওয়া ঘটনাটি নিয়ে সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে বিষোদগার করেছিলেন পুলিশের সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) গোলাম রাব্বানী। সে বক্তব্যটি সামাজিক যোগাযোগ
হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হককে সোনারগাঁওয়ের একটি রিসোর্টে নারীসহ অবরুদ্ধ করে রাখার ঘটনায় সংশ্লিষ্ট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলামকে বদলি করা হয়েছে। রোববার রাতে সোনারগাঁও থানার পরিদর্শক
হেফাজতের যুগ্ন-মহাসচিব মামুনুল হককে স্বস্ত্রীক হেনস্থা করার অভিযোগে স্থানীয় ছাত্রলীগ ও যুবলীগের নেতাদের বিরুদ্ধে সোনারগাঁ থানায় অভিযোগ দায়ের হয়েছে।  মামুনুলের পক্ষে অভিযোগ দায়ের করেছেন হেফাজত নেতা মুফতি ফয়সাল মাহামুদ হাবিবী।
হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হককে নারীসহ নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও উপজেলায় এক রিসোর্টে অবরুদ্ধ করে রেখেছেন স্থানীয়রা। তবে ওই নারীকে নিজের দ্বিতীয় স্ত্রী বলে দাবি করেন মামুনুল হক।  
হেফাজতের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব মামুনুলকে দ্বিতীয় স্ত্রীসহ অবরুদ্ধ করে লাঞ্ছিত করার ঘটনায় হেফাজতের বিক্ষুব্ধ কর্মী সমর্থকদের সাথে পুলিশ ও র‌্যাবের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষ চলছে। হেফাজতের কর্মীরা পুলিশ ও
সোনারগাঁওয়ের একটি রিসোর্টে নারীসহ বেড়াতে গিয়ে স্থানীয় জনগণের হামলার মুখে পড়েছেন হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব ও ও বাংলাদেশ খেলাফত মজলিশের মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হক। শনিবার (৩ এপ্রিল) বিকাল ৩টায়
সোনারগাঁয়ের রয়েল রিসোর্টে নারীসহ আটক হয়েছেন হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হক৷  যদিও ওই নারীকে নিজের স্ত্রী দাবি করেছেন মামুনুল হক৷  শনিবার (৩ এপ্রিল) বিকেলে এ ঘটনা ঘটেছে৷ মাওলানা

Translate »
Translate »